ফরিদপুরের মধুখালি উপজেলায় চাষের ধান ক্ষেত থেকে মিলেছে মানুষের কঙ্কাল।এ ঘটনায় ঐ এলাকার মধ্যে চাঞ্চল্যকর পরিবেশ তৌরী হয়েছে।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার মেগচামী ইউনিয়নের বনগ্রাম এলাকার একটি বিলের ধানক্ষেত থেকে এই হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়।এসময় সেখানে পড়ে থাকা প্যান্টের বেল্ট দেখে হাড়গুলো আল-আমিন (১৭) নামে এক নিখোঁজ কিশোরের বলে সনাক্ত করেন তার স্বজনরা।

নিহত আল আমিন রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের আকিদুল মোল্যার ছেলে।

জানা যায়, রাজবাড়ী বালিয়াকান্দির একটি মুরগির ফার্মের কর্মচারী ছিলেন আল আমিন। ফার্ম থেকে নিখোঁজ হওয়ার ৮৪ দিন পর তার হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়।

আরো জানা যায়, গত ৬ সেপ্টেম্বর রাতের খাওয়া-দাওয়া শেষে মুরগির ফার্মেই ঘুমিয়ে পড়ে আল-আমিন। পরদিন সকালে আর তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তার সন্ধান না পাওয়ায় গত ১১ সেপ্টেম্বর বালিয়াকান্দি থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন আল আমিনের বাবা মো. আকিদুল মোল্লা। (বালিয়াকান্দি থানার নিখোঁজ ডায়েরী নং- (৪৫৩/২২)।

রাজবাড়ী সিআইডির ইন্সপেক্টর জিল্লুর রহমান বলেন, হাড়গোড় উদ্ধার করে ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে ডিএনএ টেস্ট করে নিশ্চিত হওয়া যাবে হাড়গুলো ঐ তরুনের কিনা।

মধুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, উপজেলার মেগচামী ইউনিয়নের বিল সিংহনাথ মৌজার একটি ধানক্ষেতে হাড়গোড় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরে খবর দিলে সেখানে উপস্থিত হয়ে হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়। হাড়গুলো ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ সময় সেখানে রাজবাড়ী ও ফরিদপুর জেলার উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তা, সিআইডি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।