কুলিয়ারচর - August 9, 2018

“সংবাদ প্রকাশের জের” : কুলিয়ারচরে চাঁদা দাবির অভিযোগ করে সাংবাদিকের নামে জিডি ও প্রাণ নাশের হুমকি

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ২০১৮ সালের জেএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম ফিলাপে সরকার নির্ধারিত ফি নেওয়ার পরিবর্তে অতিরিক্ত ৩ থেকে ৬ গুণ বেশি ফি আদায়, সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোচিং বাণিজ্য ও মডেল টেস্ট নামক পরীক্ষার নাম করে মোটা অঙ্কের অর্থ আদায়ের অভিযোগে বিক্ষোভ ও প্রধান শিক্ষক কর্তৃক এক শিক্ষার্থী লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় একাধিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের জের ধরে উপজেলার লক্ষ্মীপুর দ্বি- মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জসিম উদ্দিন খোকন সহ একাধিক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও তাদের আত্নীয়- স্বজন উপজেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ কাইসার হামিদকে প্রাণ নাশের হুমকী দেয়। এ ঘটনায় সাংবাদিক কাইসার হামিদ বাদী হয়ে গত ৪ আগষ্ট কুলিয়ারচর থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা ৬-৭ জনের নামে একটি সাধারণ ডায়েরী নং- ১৬৬ দায়ের করেন। এ ঘটনায় একাধিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর গত ৭ আগষ্ট নিজেদের দোষ ঢাকতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি কুলিয়ারচর শাখার উদ্দ্যেগে এক মিটিং করে সাংবাদিক কাইসার হামিদের নামে ১৩ জন প্রধান শিক্ষক যৌথ স্বাক্ষর করে চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে কুলিয়ারচর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী নং- ২৮০ দায়ের করেন। সাধারণ ডায়রীতে তারা উল্লেখ করেন, কাইসার হামিদ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিদ্যালয়ে গিয়ে তাদের নিকট অভিনব কৌশলে চাঁদা দাবি করে। প্রধান শিক্ষকগণ চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে ওই সাংবাদিক তাদের বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকী দেয় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালায়। এ ছাড়া এলাকার সাধারণ জনগণের নিকট থেকেও বিভিন্ন ভাবে হুমকী দিয়ে চাঁদা আদায়ের সংবাদ পাওয়া যায় বলে উল্লেখ করেন। সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগে থানায় জিডি দায়েরের বিষয়ে জিডিতে স্বাক্ষরকারী বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি কুলিয়ারচর উপজেলা শাখার সভাপতি শাহ মোঃ ফজলুল হকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, উক্ত জিডির কপিতে চাঁদা দাবির কথা উল্লেখ করা আছে কিনা তা আমার জানা নেই। এ ছাড়া ওই সাংবাদিক আমার নিকট কখনো কোন প্রকার চাঁদা দাবি করেনি। জিডিতে স্বাক্ষরকারী বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি কুলিয়ারচর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল কাদির, বেগম নূরুন্নাহার পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মতিয়ার রহমান, ছয়সূতী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোস্তাকুর রহমান, বীর কাশিম নগর এফ.ইউ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রিয়াজুল করিম, আবুল কাশেম নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিউটি বেগম, আব্দুল্লাহপুর- বড়চারা আইভি রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনিসুজ্জামান, লায়ন মজিব- মুনা গার্লস স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইয়াছিন খন্দকার, বাংলাবাজার আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সৈয়দা নাছিমা আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারাও বলেন, ওই সাংবাদিক তাদের নিকট কোন প্রকার চাঁদা দাবি করেনি। অপর এক প্রশ্নের জবাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রধান শিক্ষক বলেন, ওই সাংবাদিককে আমরা চিনিইনা। আমাদের নিকট চাঁদা দাবির কোন প্রশ্নই উঠেনা। তারা আরো বলেন, লক্ষ্মীপুর দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জসিম উদ্দিন আমাদের ভুল বুঝিয়ে সংগঠনের দোহায় দিয়ে আমাদের নিকট থেকে জিডির কপিতে স্বাক্ষর নিয়েছেন। আমরা বে কায়দায় পরে স্বাক্ষর দিতে বাধ্য হয়েছি।

সাংবাদিক কাইসার হামিদ চাঁদা দাবির কথা অস্বীকার করে বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ করে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। নিজেদের দোষ ঢাকতে অনান্য শিক্ষকদের নিয়ে লক্ষ্মীপুর দ্বি- মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জসিম উদ্দিন খোকন আমার নামে কাল্পনিক মিথ্যা চাঁদা দাবির অভিযোগে কুলিয়ারচর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। উক্ত জিডিতে ঘটনাস্থল, ঘটনার তারিখ, ঘটনার সময় ও চাঁদা দাবীকৃত টাকার পরিমাণ এবং স্বাক্ষীর কোন নাম না থাকায় এতেই প্রমাণ হয় এটা কাল্পনিক।

জানা যায়, সাংবাদিক কাইসার হামিদকে প্রাণ নাশের হুমকী ও চাঁদা দাবির মিথ্যা অভিযোগে কুলিয়ারচর থানায় জিডি করার প্রতিবাদে সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের উদ্দ্যোগে আগামী ১১ আগষ্ট শনিবার সকাল ১১ ঘটিকায় কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচীর উদ্দ্যোগ নেওয়া হয়েছে।


আরও পড়ুন

1 Comment

  1. I just want to tell you that I am just beginner to weblog and actually enjoyed you’re website. Likely I’m want to bookmark your blog post . You really have superb writings. Many thanks for sharing with us your website page.

Comments are closed.