তাড়াইলে রস্কের প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামে প্রশিক্ষণার্থী ভর্তিতে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

Muktijoddhar Kantho , Muktijoddhar Kantho
মে ২৩, ২০১৮ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ

মুকুট দাস, তাড়াইল (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি ।। কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে রিচিং আউট অফ স্কুল চিলড্রেন(রস্ক)  ফেইজ-২ প্রকল্প প্রি-ভোকেশনাল স্কিলস প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামে প্রশিক্ষণার্থী ভর্তিতে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার ৩নং ধলা ও ৪নং জাওয়ার  ইউনিয়নে ৪ টি বিষয়ে ইলেকট্রিক হাউজ ওয়ারিং এন্ড সোলার সিষ্টেম,ইলেকট্রনিক্স এন্ড মোবাইল ফোন সার্ভিসিং,ইন্ডাস্ট্রিয়াল সুইং মেশিন এন্ড টেইলারিং ও পেট্রোল এন্ড ডিজেল ইঞ্জিন কোর্সে ১৫ বছর ও তদুর্দ্ধ বয়সের শিক্ষার্থীদেরকে বৃত্তিমৃলক দক্ষতা উন্নয়ন সহায়তার জন্য ৯০ দিন মেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়ার কথা।

জানা যায়, ন্যশনাল হিউম্যান রাইটস ক্রাইম রিপোটার্স ফাউন্ডেশন তাড়াইল উপজেলা শাখার সভাপতি আলী হায়দার গত ১৪-০৫-২০১৮ খ্রি. তারিখে তাড়াইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,উপজেলার ধলা ও জাওয়ার দু’টি ইউনিয়ন থেকে সমান সংখ্যক প্রশিক্ষণার্থী নিয়ে অতিদরিদ্র পরিবার এবং আনন্দ স্কুল থেকে ঝড়ে পড়া ১শ’ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে ৪টি ট্রেডের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ শুরু করার কথা।  কিন্ত খোঁজ নিয়ে জানা যায়,  ধলা ইউনিয়ন থেকে ২৪ জন জাওয়ার ইউনিয়ন থেকে ৭৬ জন স্বচ্ছল পরিবারের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থী নিয়ে এ প্রশিক্ষণ শুরু করা হয়েছে।যেমন. উপজেলার ধলা ইউনিয়নের সেকান্দর নগর গ্রামের আবদুর রউফের ছেলে আবদুল আহাদ বর্তমানে কিশোরগঞ্জ অলীনেওয়াজ খান কলেজে বিএ অনার্সে অধ্যায়নরত এবং জাওয়ার ইউনিয়নের ছনাটি গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে স্বর্ণা আক্তার তাড়াইল মুক্তিযোদ্ধা ডিগ্রী কলেজে অধ্যায়নরত থাকলেও তাদেরকে উক্ত প্রশিক্ষণের আওতায় প্রশিক্ষণ কোর্সে ভর্তি দেখানো হয়েছে।

সরেজমিনে ধলা ও জাওয়ার ইউনিয়নে প্রাইমারী এবং আনন্দ স্কুল থেকে ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থীদের কয়েকজন অভিভাবকদের সাথে কথা হলে ক্ষোভের সাথে তারা বলেন,রস্কের উপজেলা কো-অর্ডিনেটর বাবু দিপক মন্ডল ও প্রোগ্রাম সুপার ভিশন শফিকুল ইসলাম রস্কের আইনকানুনকে তোয়াক্কা না করে সম্পূর্ণ নিয়ম বর্হিভুতভাবে অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করে লাভবান হওয়ার জন্য প্রশিক্ষণার্থী ভর্তি করেছেন।

এ ব্যপারে রস্কের উপজেলা কো-অর্ডিনেটর দিপক মন্ডলের সাথে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি বলেন, রিচিং আউট অফ স্কুল চিলড্রেন ফেইজ-২ প্রকল্প প্রি ভোকেশনাল স্কিলস প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামে প্রশিক্ষণার্থী ভর্তিতে ব্যাপক অনিয়মের কথা অস্বীকার করেন।তিনি আরো বলেন,অত্র উপজেলায় আনন্দ স্কুল ও প্রাইমারী থেকে ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থী না পেয়ে অবশেষে বাধ্য হয়ে মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের নিয়ে রস্কের কার্যক্রম শুরু করেছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুৎফুন নাহারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন,ধলা ও জাওয়ার ইউনিয়নে রস্কের প্রশিক্ষণার্থী ভর্তিতে ব্যাপক অনিয়ম এবং দুর্নীতি বিষয়ক অভিযোগটি হাতে পেয়েছি।তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments are closed.

LATEST NEWS