muktijoddhar kantho logo l o a d i n g

নির্বাচন

প্রার্থী হয়েও ভোট দিতে পারলেন না হিরো আলম

প্রার্থী হয়েও ভোট দিতে পারলেন না হিরো আলম

ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থী হয়েও নিজেকে ভোট দিতে পারলেন না স্বতন্ত্র প্রার্থী আলোচিত ইউটিউবার আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্র মিলে মোট সাতজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের অল্প কয়েক মাস আগের এই ভোট নিয়ে ভোটারদের মধ্যে খুব একটা আগ্রহ না থাকলেও অনেকটা হিরো আলমের জন্যই আলোচনায় এসেছে এই আসনের ভোট। তবে হিরো আলম নিজেই নিজেকে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাননি। কারণ তিনি এই আসনের ভোটার নন। তার নিজ এলাকা বগুড়ার ভোটার তিনি।

তবে শুধু হিরো আলম নন, একাধিক প্রার্থী নিজেকে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাননি। ঢাকার বাইরের আছেন আরও একজন। বাকিদের মধ্যে অন্তত দুজন আছেন যার একজন উত্তরার, আরেকজন পুরান ঢাকার গেন্ডারিয়া এলাকার ভোটার।

তবে হিরো আলম ভোট দিতে না পারলেও আজ সোমবার সকাল থেকে ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে যান।

সংসদ নির্বাচনে যেকোনো আসন থেকে নির্বাচন করার সুযোগ থাকলেও যেখানে ভোটার সেই আসন ছাড়া ভোট দেওয়ার সুযোগ নেই প্রার্থীদের।

চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক গত ১৫ মে মৃত্যুবরণ করায় ঢাকা-১৭ আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। এই আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী আরাফাত, আলোচিত ইউটিউবার মো. আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম, জাতীয় পার্টির জিএম কাদেরপন্থী সিকদার আনিসুর রহমান, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. রেজাউল ইসলাম স্বপন, গণতন্ত্রী পার্টির মো. কামরুল ইসলাম, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট'র মো. আকতার হোসেন ও তৃণমূল বিএনপির শেখ হাবিবুর রহমান।

এদিকে ভোটকেন্দ্র থেকে এজেন্টদের মারধর ও বের করে দেওয়ায় অভিযোগ করেছেন ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলম।

আজ সোমবার সকালে বনানী মডেল স্কুল কেন্দ্র পরিদর্শন গিয়ে একতারা প্রতীকের এই প্রার্থী বলেন, ‘যখনই বলতেছে একতারার লোক, হিরো আলমের লোক, তখনই কিন্তু বের করে দিতেছে। তাহলে এই রকম করে এজেন্ট বের করে দেওয়ার মানে হইল, তারা একতরফা তাদের এজেন্ট দিয়ে সিল মারার চেষ্টা করতেছে।’